বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০, ০৭:২৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
করোনা প্রতিরোধে শিবচরে কঠোর অবস্থানে প্রশাসন, বাজার ও মোড়ে মোড়ে তল্লাশি চৌকি শিবচরে প্রবেশের সব রাস্তা বন্ধ ঘোষণা, প্রশাসনের কঠোর হুঁশিয়ারি, ছাড়পত্র নিয়ে সুস্থ ৩জনসহ আরো ১জন ফের আইসোলেশনে কালকিনিতে জ্বর ও গলাব্যথা নিয়ে একজনের মৃত্যু হতদরিদ্রদের মাঝে চীফ হুইপের ব্যক্তিগত তহবিলসহ সরকারীভাবে শিবচরে মোট জনসংখ্যার ৩ ভাগের ১ ভাগ খাদ্য সহায়তা প্রদান চিকিৎসকসহ স্বাস্থ কর্মী ও প্রশাসনের মাঝে পিপিই বিতরন করলেন চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী এমপি চীফ হুইপের পক্ষ থেকে শিবচরে বেঁদে পল্লীর হতদরিদ্রদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করোনা সর্তকতায় হোমকোয়ারেইন্টেনে থাকা দুস্থদের পাশে শিবচর সমাজসেবী সংঘ শিবচরে কাদিরপুরে অগ্নিকান্ডে ১০টি বসতঘর পুড়ে ছাই, ৩ ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে ফায়ার সার্ভিস মাদারীপুরে অগ্নিকান্ডে ২ কৃষকের বসতঘরসহ ৫টি পুড়ে ছাই, ১০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি করোনা প্রাদুর্ভাবের মধ্যেই পদ্মা সেতুর সর্বশেষ পিয়ারের কাজ শেষ 
শিবচরে নারী থেকে পুরুষে রুপান্তরিত হওয়ার খবরে এলাকায় চাঞ্চল্য, উৎসুক জনতার ভিড়

শিবচরে নারী থেকে পুরুষে রুপান্তরিত হওয়ার খবরে এলাকায় চাঞ্চল্য, উৎসুক জনতার ভিড়

শিবচর বুলেটিন ডেস্কঃ  মাদারীপুরের শিবচরের সেরেলা আক্তার হেনা ১৫ বছর পর ফিরে আসলো সেলিম রেজা হয়ে। নারী থেকে পুরুষে রূপান্তরিত হয়ে ফিরে আসায় এলাকায় চাঞ্চল্যকর পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। একনজর দেখার জন্যএলাকার মানুষ জনে জনে ভিড় করছে সেলিম রেজার বাড়িতে। যদিও পুরুষে রুপান্তরিত হওয়া সেলিম রেজার দাবী হরমনজনিত সমস্যার কারণেই তার এই পরিবর্তন হয়েছে। সেলিম রেজা(৩০) শিবচর উপজেলার নিলখী ইউনিয়নের চরকামার কান্দি গ্রামের সেকান্দার খানের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১৫ বছর পূর্বে সেরেলা আক্তার হেনা ওরফে সেলিম রেজা পড়াশুনা করার জন্য ঢাকায় চলে যায়। তখন তিনি সম্পূর্ণ নারীর মতোই ছিল। নারীদের মত লম্বা চুল, নারীদের মতো আচার-আচরণ, উঠাবসা নারীদের মতোই ছিল। তবে গেল বেশ কয়েক বছর যাবৎ হরমনজনিত কারণে তার এই আচরণ পুরুষের মতো হতে শুরু করে। ধীরে ধীরে সে পুরুষের মত আচরণ করতে শুরু করে। একপর্যায়ে সম্পূর্ণ পুরুষের মতোই তার দৈনন্দিন চলাফেরা শুরু হয়। এলাকাবাসী জানা তিনি নাকি বিয়েও করেছেন। বিয়ে করা স্ত্রীকে নিয়েই গ্রামের বাড়ি শিবচর উপজেলার নিলখীতে আসেন গত সপ্তাহে। এ খবর শুনে এলাকার মানুষ উৎসুক হয়ে সেলিম রেজাকে দেখতে তার বাড়িতে ভিড় করেন।

সেলিম রেজার দাদী আসমা বেগম জানান, সেরেলা আক্তার হেনা ওরফে সেলিম রেজা আমার চোখের সামনেই বড় হয়েছে। তখন দেখেছি সে সম্পূর্ণই মেয়ে মানুষের মতো। তবে ১২-১৫ বছর পূর্বে তারা ঢাকা চলে যায়। বেশ কয়েক বছর আগে আমি ঢাকায় তার বাসায় গিয়েছিলাম। তখনও সে সেলোয়ার কামিজ পড়তো, বড় চুল ছিল অবিকল মেয়ে মানুষের মতোই ছিল। কয়েক বছর ধরে শুনতেছি হেনা নাকি পুরুষ হয়ে গেছে। গত সপ্তাহে বাড়ি আসার পর আমরাতো প্রথমে চিনতেই পারিনি।

সেরেলা আক্তার হেনা ওরফে সেলিম রেজা জানান, সত্যি বলতে কি আমি মেয়ে মানুষই ছিলাম। আমার আচার-আচরণ, কথা বার্তা সর্ম্পূনই মেয়ে মানুষের মতোই ছিল। তবে আমার হরমনজনিত একটা রোগ ছিল। যেটা আমি ছোট বেলা থেকেই টের পেয়েছি। মেয়েদের মতো দেখা গেলেও মেয়ে মানুষের মতো অনুভূতি হতো না। আস্তে আস্তে এই রোগটা আমার বড় হতে থাকে। একপর্যায়ে আমার শারীরিক গঠন ও আচরণ সম্পূর্ণই পুরুষের মতো হয়ে পড়ে। তিনি আরো বলেন, হরমনের সমস্যার কারণে চিকিৎসকের পরামর্শে ঔষুধও খেয়েছি, কিন্তু রোগটি সেরে উঠেনি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© শিবচর বুলেটিন। সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host Web